fbpx

বাংলাদেশসহ এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে ‘হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিং’ সুবিধা চালু করেছে

ডেটা আইসোলেশন এবং এইএস২৬৫ এনক্রিপশনের মাধ্যমে এটি মিটিংয়ের তথ্য ও রেকর্ডিংকে সর্বোচ্চ সুরক্ষা দান করে।হুয়াওয়ে সম্প্রতি বাংলাদেশসহ এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে ‘হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিং’ সুবিধা চালু করেছে, যার মাধ্যমে নিরাপদ ও নির্ভরযোগ্য ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দূরদূরান্ত থেকে যুক্ত হওয়া যাবে।

ডিভাইস ও ক্লাউডের সমন্বয়ে তৈরি এই ভিডিও কনফারেন্স ব্যবস্থার মাধ্যমে বিশ্বের যেকোনো স্থান থেকে একই সময়ে সর্বোচ্চ এক হাজার জন পর্যন্ত অংশগ্রহণকারী একসঙ্গে যুক্ত হতে পারবেন।

ডিভাইস-ক্লাউড সিনার্জি প্রযুক্তির সহায়তায় এ সলিউশনের মাধ্যমে এক ক্লিকের মাধ্যমেই যেকোনো কম্পিউটার, মোবাইল ফোন, ট্যাবলেট, মিটিং রুম টার্মিনাল এবং স্মার্ট টিভির মধ্যে ডেটা শেয়ার ও ট্রান্সফার করা যাবে। এ সলিউশন ডেটা, অডিও ও ভিডিও’র আলট্রা-ফাস্ট ওয়্যারলেস প্রজেকশন সমর্থন করবে। উন্নত প্রযুক্তিতে তৈরি এই ক্লাউড মিটিং যেকোনো অভ্যন্তরীণ বা বাহ্যিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে হয়ে উঠতে পারবে।

করোনা পরিস্থিতিতে শারীরিক নিরাপত্তা বজায় রেখে প্রয়োজনীয় দাপ্তরিক যোগাযোগ সম্পন্ন করার জন্য ভিডিও কনফারেন্সের ব্যবহার ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই লক্ষ্যে হুয়াওয়ে এই প্রযুক্তি ডিজাইন করেছে।

হুয়াওয়ে এশিয়া প্যাসিফিকের ক্লাউড অ্যান্ড এআই প্রেসিডেন্ট ডেনিয়েল ঝোউ বলেন, “ভার্চুয়াল মিটিংয়ের অভিজ্ঞতায় যুগান্তকারী পরিবর্তন নিয়ে আসার লক্ষ্যে হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিং উন্মোচন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ব্যবহার দূরে বসেও মুখোমুখি আলোচনার অভিজ্ঞতা পাবেন, যা তাদের যোগাযোগকে আরও সহজ ও নিরবচ্ছিন্ন করে তুলবে।”

ডেটা আইসোলেশন এবং এইএস২৬৫ এনক্রিপশনের মাধ্যমে এটি মিটিংয়ের তথ্য ও রেকর্ডিংকে সর্বোচ্চ সুরক্ষা দান করে। উদ্ভাবনের উৎকর্ষের স্বীকৃতিস্বরূপ এ প্রযুক্তিগত ডিজাইন রেড ডট ২০২০ অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে।

https://rebrand.ly/hwCM1fb  এই লিংক ব্যবহার করে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল থেকে হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিংয়ে নতুন যুক্ত হওয়া ব্যবহারকারীরা ১০০ ডলার মূল্যমানের ছাড় উপভোগ করতে পারবেন।

 

Facebook Comments