fbpx

হাতে ট্যাটু করায় কটাক্ষের মুখে আমিরকন্যা ইরা খান

সম্প্রতি ট্যাটু করা শিখেছেন বলিউড সুপারস্টার আমির খানের কন্যা ইরা খান। দুর্ভাগ্যক্রমে নিজের হাতে ট্যাটু করা ছবি সামাজিকমাধ্যমে শেয়ার করে মৌলবাদীদের কটাক্ষের মুখে পড়েছেন তিনি।

শখের কাজ ট্যাটু করা শিখে তা নিয়েই নিত্য নতুন পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছেন। নিজের হাতে প্রথমবার ট্যাটু বানানোর ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন ইরা। আর এরপরেই মৌলবাদীদের কটাক্ষের মুখে পড়তে হয় আমির কন্যাকে।

সম্প্রতি নূপুর শিখারে বলে এক ব্যক্তির হাতে ট্যাটু করে সেই ছবি পোস্ট করেছেন ইরা খান। ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘আমি আমার প্রথম ট্যাটুটি করে ফেলেছি!  ধন্যবাদ নূপুর শিখারে আমার উপর বিশ্বাস রাখার জন্য। খুব একটা খারাপ হয়নি, তাই না? আমি মনে করি এটা আমার একটা বিকল্প ক্যারিয়ার হতে পারে। ’

এদিকে ট্যাটু করার ছবি পোস্ট করতেই সামাজিকমাধ্যমে কিছু মৌলবাদীর কটাক্ষের মুখে পড়তে হয় ইরাকে। ইরাকে ‘উচিত শিক্ষা’ দিতে মাঠে নেমে পড়েন অনেকে। খাঁটি মুসলিম তিনি নন, এই কাজ ইসলাম ধর্মে পাপ, একজন মুসলিম হয়ে এমন কাজ তিনি কী করে করতে পারেন, এমনই সব ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ ধেয়ে আসতে থাকে তার দিকে।

একজন লিখেছেন, ‘কিছুলোক নামের পরে খান, পাঠান, সৈয়দ, হাশমি ব্যবহার করেন, অথচ তারা আসলে মুসলিমই নয়’। আরেকজন ইরাকে প্রশ্ন করেছেন, ‘আপনি কীরকম মুসলিম, জানেন না ইসলামে এটা হারাম?’

তবে সবাই যে সমালোচনা করেছেন তেমনটাও নয়। অনেকেই ইরার সৃজনশীল কাজের প্রশংসা করেছেন। এই ট্যাটুর অর্থ ঠিক কী সেটা জানার জন্য অনেকে প্রশ্নও করেছেন। এ সব কথায় বিশেষ কর্ণপাত করেননি ইরা। তবে পাল্টা কোনও জবাবও দেননি তিনি।

Facebook Comments